সদ্যজাত বাছুরের যত্ন ও পরিচর্যা

স্তন্যপায়ী প্রায় সকল প্রাণীর জন্মপ্রক্রিয়া একই হলেও কিছু প্রাণীর ক্ষেত্রে জন্ম পরবর্তী নিবিড় যত্ন দরকার হয়। আমাদের দেশে ঘাস আর খড়ের উপর নির্ভর করে পালন করা দেশি গরুতে বাছুরের জন্ম পরবর্তী জটিলতা হতোনা বললেই চলে কারণ একদিকে গর্ভাবস্তায় গরু যেমন পর্যাপ্ত পরিমান পুষ্টিকর ঘাস পেতো আবার অন্যদিকে গরুও ছিলো শক্ত জাতের। কিক্ত বর্তমান বাস্তবতায় বিদেশী ক্রস জাতের গাভী এবং বাছুরের জন্য জন্ম পরবর্তী নিবিড় পরিচর্যা জরুরি। যেকোনো প্রাণী ভূমিষ্ট হওয়ার পরে খুব অসহায় অবস্থায় থাকে এবং পরিচর্যার মাধ্যমে তাকে সুস্থ সবল করে তুলতে হয়। জন্ম পরবর্তী পরিচর্যার উপরেই একটা বাছুরের…

পোল্ট্রি খামারে জৈব নিরাপত্তা

শীতের আগেই হাঁস-মুরগি, কবুতর ও কোয়েলের খামারগুলোতে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নিতে হয়। কারণ বার্ড ফ্লু, রানীক্ষেত ও গামবোরো রোগের ভাইরাস কম তাপমাত্রায় অর্থাৎ শীতের আগে, শীতের সময় ও শীতের পরপরই সক্রিয় হয়ে মুরগিতে আক্রমণ করে। এজন্য হাঁস-মুরগির খামারগুলোতে জৈব নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে, যাতে কোন ভাবেই জীবাণু খামারে ঢুকতে না পারে এবং মুরগিতে সংক্রমিত না হয়। খামারে ভাইরাস জীবাণু সংক্রমিত হলে মুরগির মৃত্যু নিশ্চিত। তাই প্রতিরোধকমূলক অর্থাৎ জৈব নিরাপত্তা ব্যবস্থাই পোল্ট্রি শিল্পকে রক্ষা করার একমাত্র উপায়। খামারে জৈব নিরাপত্তা ব্যবস্থা করার জন্য সরকার, খামারের মালিক, কর্মকর্তা, কর্মচারি, পোল্ট্রি সামগ্রী আমদানি,…

ঝুঁকির মধ্যেই রাজধানীতে বসছে ১৭ পশুর হাট

ঈদুল আজহায় করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকির মধ্যেই রাজধানীতে বসছে ১৭ পশুর হাট। অপরিকল্পিত পশুর হাট বসতে নিষেধাজ্ঞা, নির্দিষ্টস্থানে ময়লা–আবর্জনা ফেলাসহ এসব হাট ইজারাদারদের বিশেষ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। জানা গেছে, এবার ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি) এলাকার ১৭টি স্থানে বসবে কোরবানির পশুর হাট। এর মধ্যে ডিএনসিসি এলাকায় ৬টি পশুর হাট বসবে। এর মধ্যে একটি স্থায়ী হাট এবং ৫টি অস্থায়ী। স্থায়ী হাটটি বসবে গাবতলীতে। অস্থায়ী হাটগুলো হলো– উত্তরা ১৭ নম্বর সেক্টরে বৃন্দাবন থেকে উত্তর দিকে বিজিএমইএ ভবন পর্যন্ত খালি জায়গায়; কাওলা শিয়াল ডাঙ্গা সংলগ্ন খালি জায়গায়; ৪৩ নম্বর ওয়ার্ডের…

সরিষাবাড়ীতে ধান চাষে আধুনিক পদ্ধতি ব্যবহারে চাষীদের নিয়ে বিশেষ বৈঠক!

মোঃ লিমন মিয়া সরিষাবাড়ী প্রতিনিধি: জামালপুরে সরিষাবাড়ী উপজেলায় ৩নং ডোয়াইল ইউনিয়নের ডিক্রীর বন্দ বাংলাবাজার এলাকার ০৯/০৭/২০২০ ইং রোজ বৃহস্পতিবার সকল ধান চাষিদের নিয়ে আধুনিক পদ্ধতিতে ধান চাষ করার উপকারীতা নিয়ে  বিশেষ বৈঠকের আয়োজন করেন ফুয়াদ এন্টারপ্রাইজের প্রোঃ মোঃ সজীব মিয়া উক্ত বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সিনজেন্টা বাংলাদেশ কোম্পানির এস পি ও মোঃ এরশাদুল হক ও এফ ও মোঃ সোহেল রানা। আর উপস্থিত ছিলেন এলাকার বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তি গন এবং এলাকার সকল কৃষকগন। উক্ত বৈঠকে আধুনিক পদ্ধতিতে ধান চাষ করার পদ্ধতি নিয়ে গুরুত্ব পূর্ণ বক্ত রাখেন সিনজেন্টা কোম্পানির এস পি ও মোঃ…

করোনা পরিস্থিতিতে এনএটিপি-২ (প্রানিসম্পদ) কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করলো জাতিসংঘ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বিশ্বব্যাপী করোনা পরিস্থিতি দিন দিন খারাপের দিকেই যাচ্ছে। সারাবিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও করোনা পরিস্থিতি আশঙ্কাজনক। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে স্বাভাবিকভাবে দেশের প্রাণিসম্পদের উন্নয়নে চলমান ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল এন্ড টেকনোলজি প্রোগ্রাম -২ (প্রাণিসম্পদ অঙ্গ) এর কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেছে জাতিসংঘ। বৃহস্পতিবার ( ৯ জুলাই ২০২০ ইং) সংস্থাটির বাংলাদেশ অফিস থেকে সোস্যাল মিডিয়ায় পাঠানো এক বার্তা থেকে এ তথ্য পাওয়া যায়। সংস্থাটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইন্টারন্যাশনাল ফান্ড ফর এগ্রিকালচালার ডেভোলপমেন্ট (আই এফ আই ডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাথে যৌথভাবে দেশের ডেইরী খামারীদের সহযোগিতা করে চলেছে। যেখানে খামারীরা নিয়মিতভাবে গবাদি প্রানির ভ্যাকসিনেশন, নিঊট্রিশন এবং…

বাংলাদেশের প্রাণিসম্পদ ॥ উজ্জ্বল সম্ভাবনাময় একটি খাত

প্রাণিসম্পদ প্রাণিজ আমিষ যোগানের একটা গুরুত্বপূর্ণ খাত। প্রাণিজ উৎস থেকে সরবরাহকৃত আমিষের পরিমাণ প্রায় ৬৫ শতাংশ। মোট জনসংখ্যার প্রায় ২০ শতাংশ প্রত্যক্ষভাবে এবং ৫০ শতাংশ পরোক্ষভাবে এই খাতের সঙ্গে সম্পৃক্ত। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গভীরভাবে বিশ্বাস করতেন কৃষির উন্নতি ছাড়া বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন সম্ভব নয়। স্বাধীনতা পরবর্তী যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ পুনর্গঠনে জাতির পিতা তখন দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধু কুমিল্লায় এক বিশাল জনসভায় বলেছিলেন ‘…আমার মাটি আছে, আমার সোনার বাংলা আছে, আমার পাট আছে, আমার মাছ আছে, আমার লাইভস্টক আছে, যদি ডেভেলপ করতে পারি ইনশাল্লাহ, এদিন আমাদের…

ধ্বংসের হাত থেকে পোল্ট্রি শিল্পকে বাঁচান।

২০২১ সালের মধ্যে বছরে ১২০০ কোটি ডিম ও ১০০ কোটি ব্রয়লার উৎপাদন এর মধ্যে ১২ হাজার কোটি টাকা রপ্তানি করা সম্ভাব, ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তের দাঁড়িয়ে আমাদের পোল্ট্রি শিল্প। দেশীয় পুঁজি এবং দেশীয় উদ্যোগে তিলে তিলে গড়ে উঠা এই শিল্পটি দেশের পুষ্টি চাহিদা মেটানোর ক্ষেত্রে বিরাট ভূমিকা রেখেছে। পোল্ট্রি ব্যাপকভিত্তিক কর্মসংস্থানমুখি একটি শিল্প এবং আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির নতুন বিপ্লবের পথ দেখিয়েছে। শুধুমাত্র চাকরি নির্ভরশীল না হয়ে আমাদের যুব সমাজ ছোট ও মাঝারী পুঁজি নিয়ে অর্থকরী শিল্পে পরিণত করেছে পোল্ট্রি শিল্পকে। ব্যাপারটিকে হাল্কা করে দেখার মোটেই অবকাশ নেই। পোল্ট্রি শিল্পের কল্যাণে অনেক বেকার যুবক…

দেশি মুরগির স্বাদ’ নিয়ে আসছে নতুন জাতের মুরগি

বাংলাদেশ প্রাণি সম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএলআরআই) নতুন একটি জাতের মুরগি উদ্ভাবন করেছে, যার মাংসের স্বাদ দেশি মুরগির মতো বলে দাবি করা হয়েছে। শনিবার (27-06-2020) প্রতিষ্ঠানটির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এই মুরগি দেখতে অবিকল দেশি মুরগির মতো। রোগবালাই কম হয় বলে এই জাতের মুরগি পালনে ওষুধের ব্যবহার অনেক কম। “এর মাংস অনেক বেশি সুস্বাদু ও নিরাপদ।” ‘স্বল্প সময়ের মধ্যে’ এই জাতের মুরগি বাজারজাত করার ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ প্রাণি সম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এই মুরগি বাজারে আনার লক্ষ্যে আফতাব হ্যাচারি লিমিটেড এবং বিএলআরআইয়ের মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত…

পোল্ট্রি খামারে জৈব নিরাপত্তা

কৃষিবিদ ফরহাদ আহাম্মেদ : শীতের আগেই হাঁস-মুরগি, কবুতর ও কোয়েলের খামারগুলোতে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নিতে হয়। কারণ বার্ড ফ্লু, রানীক্ষেত ও গামবোরো রোগের ভাইরাস কম তাপমাত্রায় অর্থাৎ শীতের আগে, শীতের সময় ও শীতের পরপরই সক্রিয় হয়ে মুরগিতে আক্রমণ করে। এজন্য হাঁস-মুরগির খামারগুলোতে জৈব নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে, যাতে কোন ভাবেই জীবাণু খামারে ঢুকতে না পারে এবং মুরগিতে সংক্রমিত না হয়। খামারে ভাইরাস জীবাণু সংক্রমিত হলে মুরগির মৃত্যু নিশ্চিত। তাই প্রতিরোধকমূলক অর্থাৎ জৈব নিরাপত্তা ব্যবস্থাই পোল্ট্রি শিল্পকে রক্ষা করার একমাত্র উপায়। খামারে জৈব নিরাপত্তা ব্যবস্থা করার জন্য সরকার, খামারের মালিক, কর্মকর্তা,…

বাংলাদেশের কৃষি উন্নয়নে বঙ্গবন্ধুর অবদান

মধুমতি নদীর কোল ঘেঁষে দক্ষিণাঞ্চলের এক অজপাড়াগাঁ গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ জন্মগ্রহণ করেন ‘খোকা নামে একটি শিশু। কালক্রমে এই খোকা হয়ে ওঠেন বাংলার মহানায়ক। তিনি আর কেউ নন। তিনি বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতির অবিস্মরণীয় মহান নেতা। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি একটি স্বাধীন দেশের প্রতিষ্ঠাতা প্রাণ পুরুষ হয়ে উঠেছিলেন, বহু ত্যাগ তিতিক্ষা আর সংগ্রামের বন্ধুর পথ পাড়ি দিয়ে। হয়ে উঠেছিলেন গণমানুষের ভালোবাসায় সিক্ত এক দীপ্তিময় কালপুরুষ। পঞ্চান্ন বছরের যাপিত জীবন ছিল বঙ্গবন্ধুর, যা সময়ের বিচারে সংক্ষিপ্ত-ই বলা যায়। কিন্তু জীবনের দৈর্ঘ্যরে…